রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
Logo রাস্তায় পড়ে থাকা অসুস্থ বৃদ্ধের চিকিৎসার সহ যাবতীয় দায়িত্ব নিলেন সনাতনী সেচ্ছাসেবী ফাউন্ডেশন Logo হাবড়া নান্দনিক নাট্যোৎসবের কেতন ওড়ালো Logo নড়াইলে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ ও বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন এসপি মেহেদী হাসান Logo নড়াইলে ওয়ারেন্টভূক্ত আসামি তরিকুল ইসলাম গ্রেফতার Logo বীরগঞ্জে কমেছে সবজি-পেঁয়াজের দাম, মাংসের দাম চড়া Logo বীরগঞ্জে জুয়া খেলার সরঞ্জাম সহ ইউপি সদস্যের দুই স্ত্রী’র কারাদন্ড Logo চট্টগ্রামে বিশ্ব নাট্য দিবস উদযাপন Logo পাহাড়ের নাট্য আন্দোলন ও একজন সোহেল রানা Logo বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে ২৫ মার্চ জাতীয় গণহত্যা দিবস পালিত Logo নড়াইলের দিঘলিয়া বিটে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

‘মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করছে সরকার’

সোনার বাংলা নিউজ / ১২৪ বার পঠিত
আপডেট : রবিবার, ২৭ মার্চ, ২০২২, ৭:৫২ অপরাহ্ণ

বর্তমান সরকার মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং একটি ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত অসাম্প্রদায়িক দেশ বিনির্মাণ করা আমাদের লক্ষ্য।

রোববার (২৭ মার্চ) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির এক বৈঠকে শেখ হাসিনা একথা বলেন।বাস্তবায়ন কমিটির চেয়ারম্যান শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা ও তার পরিবারের অধিকাংশ সদস্যের হত্যাকাণ্ডের পর বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ থেকে অনেক দূরে সরে গিয়েছিল। এ দেশের জনগণের মুক্তি ও তাদের একটি সুন্দর ও উন্নত জীবন প্রদানের জন্য বঙ্গবন্ধু তার সারাটা জীবন উৎসর্গ করেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটি ছিল গোটা বাঙালি জাতির ওপর হামলা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতার আদর্শ অনুসরণ করে তার সরকার বাংলাদেশকে ২০২১ সালে একটি উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করেছে। এ বছর গোটা জাতি জাতির পিতার জন্মশত বার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করেছে।

তিনি বলেন, তার সরকার দেশকে শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় নিয়ে এসেছে এবং প্রতিটি গৃহহীন ও ভূমিহীন মানুষের জন্য বাড়ি তৈরি করে দিচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, সে দিন বেশি দূরে নয়, যখন গৃহহীন একজন মানুষও পাওয়া যাবে না। আমরা তাদের টিকে থাকার সুযোগ সৃষ্টি করছি। এ সময় প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে গতি অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন।

প্রতিটি উপজেলায় ছোট জাদুঘরসহ মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স স্থাপনের কথা তুলে ধরে তিনি সরকার প্রধান বলেন, কেউ যেন আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে ধ্বংস করতে না পারে, সে লক্ষ্যেই মূলত এগুলো স্থাপন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী তৃণমূল পর্যায়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস প্রচার করারও পরামর্শ দেন।

তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সংরক্ষণের লক্ষ্যে বর্তমান সরকারের জাতীয় গ্রন্থাগার আধুনিকায়ন এবং প্রতিটি বিভাগে প্লানেটারিয়াম ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে একটি সেল স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।

করোনা মহামারির মধ্যেও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন সফলভাবে সম্পন্ন হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী ও তার ছোট বোন শেখ রেহানার পক্ষ থেকে উদযাপন পরিষদ ও জাতীয় কমিটিকে ধন্যবাদ জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের জীবন রক্ষার জন্য বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী ও দেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব বড় পরিসরে উদযাপন করতে পারেনি। কিন্তু, ডিজিটালি অনেক অনুষ্ঠান হয়েছে।

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, বেসামরিক ও সামরিক উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বিশিষ্ট সংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বগণসহ বঙ্গবন্ধু জন্মশত বার্ষিক উদযাপন কমিটির সদস্যগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD