বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo বীরগঞ্জে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা তৈরি মৃৎশিল্পীরা Logo কুড়িগ্রামে শিশু সুরক্ষা ও শিশু অধিকার বিষয়ক সংবেদনশীল সভা অনুষ্ঠিত Logo দিনাজপুর রাজ দেবোত্তর এস্টেটের পক্ষ হতে জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদকে সংবর্ধনা প্রদান Logo চকরিয়ার কৃতি সন্তান ড, শিপন দাশ জীব প্রযুক্তি গবেষণায় দেশের জন্য সাফল্য বয়ে আনল Logo আসামের বিশিষ্ট ব‍্যক্তিত্ব ৩ জনকে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত  Logo ভারতীয় পড়ুয়াদের জন‍্য প্রজাতন্ত্র দিবসে বড় ঘোষণা ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের Logo ফটিকছড়ির শ্যামল নন্দীর দুই ছবি জাতীয় আলোকচিত্র প্রতিযোগিতায় Logo কান্তজিউ মন্দিরে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার হাবিবুর রহমানকে সংবর্ধনা প্রদান Logo পুরুলিয়ার ঘটনা বাংলাকে হিন্দু শূন‍্য করার চক্রান্ত- সর্বরী মুখোপাধ‍্যায় Logo নিঃস্বার্থ নবজীবন সংগঠন’র নবগঠিত কার্যকরী পরিষদ’২৪ এর শপথগ্রহণ ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন

ভারতকে জিতিয়ে দেয়া কে সেই তৃতীয় ব্যক্তি?

সোনার বাংলা নিউজ / ৫০ বার পঠিত
আপডেট : শুক্রবার, ৪ নভেম্বর, ২০২২, ১:০৭ অপরাহ্ণ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের গ্রুপ টু-তে বাংলাদেশ-ভারত টাই দুই দলের বাইরে আরও একজন খেলতে দেখেছে। আর বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতকে জয়ী তিনিই বলে গুঞ্জন।

অ্যাডিলেড ম্যাচে ভারতের জয় নিয়ে বাংলাদেশের লাখো ক্রিকেটপ্রেমী সান্ত্বনা নিতে পারেন সে দেশের মিডিয়া থেকে শুরু করে অনেক ক্রিকেট পণ্ডিতই। তাদের দাবি, কৌশল অবলম্বন করে বাংলাদেশকে পরাজিত করা হয়েছে।

এর আগে ব্যাটিং করে, ভারত লড়াই করেছিল এবং বিরাট কোহলির ধারাবাহিক পারফরম্যান্সকে পুঁজি করে, কিন্তু দুই বাংলাদেশি ওপেনার জবাব দিতে উড়ন্ত সূচনা করেছিলেন। বৃষ্টি না আসা পর্যন্ত বাংলাদেশকে এগিয়ে রাখে লিটন ও শান্তর ব্যাট।

তারপর এলো বৃষ্টি। খেলার মধ্যে হ্রাস. তারপর আবার খেলা শুরু হয়। অ্যাডিলেডের আকাশে তখনও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছিল। অধিনায়ক সাকিবের আপত্তির পর আম্পায়াররা আবার খেলা শুরু করেন। ফাইনালে নতুন লক্ষ্যে পথ হারায় বাংলাদেশ, ম্যাচ জিতেছে ভারত।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ জেতাতে কোন ভারতীয় ক্রিকেটার মুখ্য ভূমিকা রেখেছিলেন তা নিয়ে তর্ক করা যায়। কিন্তু প্রথম এগারোতে না থেকে আরও একজন যে কাজটি করে ফেলেছেন তা সারা ভারতের মন জয় করেছে। তার নাম রঘু রাঘবেন্দ্র। ভারতীয় দলের থ্রো ডাউন বিশেষজ্ঞ।

বাংলাদেশের ইনিংসের সপ্তম ওভারের পর হঠাৎ করেই বৃষ্টি নামে। বৃষ্টির প্রায় ৫০ মিনিট পর দ্রুত খেলা শুরু করতে চান আম্পায়াররা। ভেজা মাঠ শুকানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু পুরোপুরি সম্ভব নয়। ফলে ফিল্ডিং করতে গিয়ে রোহিতের সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা ছিল।

ঠিক এই সময় রঘু খেলা শুরু করে। ম্যাচ চলাকালীন বোলারদের নির্দেশনা দেওয়া ছাড়া আর কোনো কাজ নেই তার। কিন্তু বুধবার পরিস্থিতি ভিন্ন ছিল এবং হাতে ব্রাশ নিয়ে বাউন্ডারির ​​ধারে দাঁড়িয়েছেন তিনি।

 

ভেজা মাঠে ক্রিকেটারদের জুতার নিচে কাদা উঠছিল। কাদা জমলে জুতা ভারী হয়ে যেতে পারে, ক্রিকেটারদের দৌড়ানো কঠিন হয়ে পড়ে। সেই কথা মাথায় রেখে ব্রাশ দিয়ে রাহুল ও কোহলির জুতা পরিষ্কার করছিলেন রঘু। এটা প্রত্যেকের জন্য খুব সুবিধাজনক ছিল.

কিন্তু বিষয়টি কতটা ন্যায়সঙ্গত তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মনে। এভাবে ম্যাচ চলাকালীন ফিল্ডিংয়ের সময় মাঠের বাইরে থেকে ফিল্ডারদের পরিবেশন করা হবে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। অনেকেই বলছেন, বাংলাদেশ যদি একই সেবা পেত তাহলে লিটন দাস রান আউট হতেন না।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD